ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত: খালেদার জামিন শুনানি ২৪ এপ্রিল

0
22

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত ও জাতিগত বিভেদ সৃষ্টির অভিযোগে দায়ের করা মানহানির মামলায় জামিন শুনানির জন্য ২৪ এপ্রিল দিন ধার্য করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) ঢাকার মহানগর হাকিম জিয়াউর রহমানের আদালতে খালেদা জিয়ার গ্রেফতার সংক্রান্ত প্রতিবেদনপ্রাপ্তি সাপেক্ষে জামিন শুনানির জন্য দিন ধার্য ছিলো।

গ্রেফতার সংক্রান্ত প্রতিবেদন ফেরত না আসায় পুনরায় ২৪ এপ্রিল নতুন দিন ধার্য করেন আদালত।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি একই আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষের আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার জামিনের আবেদন করেন। আদালত গ্রেফতার সংক্রান্ত প্রতিবেদনপ্রাপ্তি সাপেক্ষে জামিন শুনানির জন্য ১৪ মার্চ দিন ধার্য করেছিলেন।

২০১৪ সালের ২১ অক্টোবর জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী   দন্ডবিধির ১৫৩ (ক) ও ২৯৫ (ক) ধারায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট  মোস্তাফিজুর রহমানের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়— ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর বিকালে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (আইইবি)-এর মিলনায়তনে শুভ বিজয়া অনুষ্ঠানে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে খালেদা জিয়া বলেন, ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ধর্ম নিরপেক্ষতার মুখোশ পরে আছে। আসলে দলটি ধর্মহীনতায় বিশ্বাসী। আওয়ামী লীগের কাছে কোনও ধর্মের মানুষ নিরাপদ নয়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে হিন্দুদের সম্পত্তি দখল করেছে। হিন্দুদের ওপর হামলা করেছে।’

মামলায় বলা হয়, ‘খালেদা জিয়ার এসব বক্তব্য যেমন ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে, তেমনি হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যে শ্রেণিগত বিভেদও সৃষ্টি করেছে।’

এরপর  গত ৩০ জুন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার ওসি (তদন্ত) জাফর আলী বিশ্বাস।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় যথাক্রমে ১০ ও সাত বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হয়েছেন খালেদা জিয়া। ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণার পর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে অবস্থিত পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়া বন্দি রয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here